Monday , July 4 2022
Home / খেলাধুলা / আবারো ব্যাট হাতে ব্যর্থ সাকিব।

আবারো ব্যাট হাতে ব্যর্থ সাকিব।

ছয় ম্যাচ খেলে ফেলেছেন। মাত্র ১২.১৬ গড়ে রান করেছেন ৭৩। ব্যাট হাতে সাকিব আল হাসানের রানখরা কাটছেই না। মোহামেডান অধিনায়কের এমন ফর্মের প্রভাব পড়ছে দলের ওপরও।

ব্যাট হাতে ব্যর্থ সাকিব
আবারো ব্যাট হাতে ব্যর্থ সাকিব।

আবারো ব্যাট হাতে ব্যর্থ সাকিব।

আজ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের বিপক্ষে ম্যাচে সাকিব আউট হয়ে গেছেন কোনো রান না করেই। ব্যর্থ মোহামেডানের টপ অর্ডারও। পরে শুভাগত হোমের ৩২ বলে ৫২ রানের সুবাদে মোহামেডান ১১৩ রান করলেও রূপগঞ্জ ১১ বল বাকি থাকতে ম্যাচ জিতে যায় ৯ উইকেট হাতে রেখেই।

শুভাগত হোম করেছেন ৩২ বলে ৫২ রান।
শুভাগত হোম করেছেন ৩২ বলে ৫২ রান।ছবি: প্রথম আলো
সাকিবের ব্যাট হাসছে না অনেক দিন ধরেই। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ওয়ানডেতে করেছেন ১৫, ০ ও ৪। এর আগে রান পাননি আইপিএলেও। অথচ ব্যাট হাতে ফর্মে ফিরতে নেটে বাড়তি অনুশীলন করছেন নিয়মিত। আজ ম্যাচের আগেও মিরপুরের ইনডোরে আলাদা করে অনুশীলন করেছেন। তবু বদলায়নি ভাগ্য।

 

সাকিবের সঙ্গে মোহামেডানের বাকি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরাও দ্রুতই ফিরে যান ড্রেসিংরুমে। ২৭ রান তুলতেই ৬ ব্যাটসম্যানকে হারায় মোহামেডান। একপর্যায়ে তো মনে হচ্ছিল, বাংলাদেশের মাটিতে টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের সর্বনিম্ন ৪৪ রানও স্পর্শ করতে পারবে না মোহামেডান! সেই লজ্জার হাত থেকে তাদের বাঁচান শুভাগত হোম। পাল্টা–আক্রমণে ৩২ বলে ১ চার ও ৫ ছক্কায় ৫২ রান করেন তিনি। ২৫ বলে ১৫ রান করে তাঁকে সঙ্গ দিয়েছেন আবু হায়দার।

১১৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে রূপগঞ্জের শুরুটাই হয়েছে দুর্দান্ত। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি খেলতে নামা পিনাক ঘোষ ও মেহেদী মারুফ মিলেই উদ্বোধনী জুটিতে করেন ৮৯ রান। মারুফের ব্যাট থেকে ৪৬ বলে ৬ বাউন্ডারিতে আসে ৪১ রান। পিনাক ৫১ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় করেছেন ৫১।

ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার নিচ্ছেন আবাহনীর নাঈম
ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার নিচ্ছেন আবাহনীর নাঈমছবি: বিসিবি
মোহামেডানের আরেকটি হারের দিনে জিতেছে আবাহনী। বিকেলে বিকেএসপির ৪ নম্বর মাঠে শাইনপুকুরকে বৃষ্টি আইনে ২৫ রানে হারিয়েছে তারা। মোহাম্মদ নাঈমের সঙ্গে আফিফ হোসেনকে ওপেনিংয়ে পাঠিয়ে অবশেষে টপ অর্ডারে রানের দেখা পেয়েছে দলটি। নাঈমের ৭০ ও আফিফের ৫৪ রানে আবাহনী করে ৫ উইকেটে ১৮৩ রান। তরুণদের সুযোগ দিতে আজ ব্যাটিংয়েই নামেননি অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

বড় রান তাড়া করতে গিয়ে শাইনপুকুর পড়ে বৃষ্টির বাধায়। বৃষ্টি আইনে ১৭ ওভারে শাইনপুকুরের লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৪৯ রান। কিন্তু তাদের ইনিংস থেমে যায় ১২৩ রানেই।
বিকেএসপির আরেক মাঠে বৃষ্টি আইনে জিতেছে খেলাঘরও। ব্রাদার্স ইউনিয়নকে তারা হারিয়েছে ৫ রানে। প্রথমে ব্যাট করে ব্রাদার্স করেছে ১৩৪ রান। পেসার খালেদ আহমেদ ও লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেন নেন দুটি করে উইকেট। ১৩৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে অবশ্য খুব একটা সমস্যা হচ্ছিল না খেলাঘরের। বৃষ্টিতে যখন খেলা থামে, মেহেদী হাসান মিরাজ খেলছিলেন ৪০ রানে।

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। প্রতিদিনের আপডেট পেতে আমাদের Facebook লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন।
ধন্যবাদ।

 

শেয়ার করতে ভুলবেন না

Check Also

বিয়ের এক

বিয়ের এক সপ্তাহ পরই মৃত্যু আরবের ফুটবলারের

বিয়ের এক সপ্তাহ পরই মৃত্যু আরবের ফুটবলারের ২২ ডিসেম্বর মাঠেই এক ফুটবলারের মৃত্যুর খবর এসেছিল। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.