Monday , July 4 2022
Home / স্বাস্থ্য সেবা / উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর যে খাবর গুলো এড়িয়ে চলা উচিত

উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর যে খাবর গুলো এড়িয়ে চলা উচিত

অনেক খাবার আছে যেগুলো খেলে উচ্চ রক্ত চাপ বেড়ে যেতে পারে।উচ্চ রক্ত চাপে ঐ সব খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।আমরা সচরাচর বিভিন্ন ধরনের নিয়মিত খাদ্য গ্রহন করি। কিন্তু অনেকেই জানে না কোন খাদ্য গুলো খেলে উচ্চ রক্তচাপ রোগীর সমস্যা হবে। আর এক্ষেত্রে রোগীকে অবস্যাই খাদ্যগুলো থেকে রিরত থাকতে হবে। আর যে খাবার গুলো উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর এড়িয়ে চলা উচিত নিয়ে আলোচনা করা হইল।

উচ্চ রক্ত চাপের
যে খাবর গুলো উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর এড়িয়ে চলা উচিত

যে খাবর গুলো উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর এড়িয়ে চলা উচিত

 

যে খাবার গুলো উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর এড়িয়ে চলা উচিত
লবণ

উচ্চ রক্ত চাপের সমস্যায় প্রথমেই যে খাদ্যাটি গ্রহন করতে নিষেধ করে তা হলো লবণ।লবণের মূল উপাদান সোডিয়াম। ফলে সোডিয়ামের কারনে রক্তচাপ দ্রুত বেড়ে যায়।যে সকল রোগীদের উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা আছে তাদের জন্য লবণ খুবই ক্ষতিকর উপাদান ।তবে রান্ন করা খাবারে যতেষ্ট পরিমানে সোডিয়াম থাকে। তার উপর কাঁচা লবণ খেলে ব্লাড প্রেসার বেশি মাত্রায় বেড়ে যেতে পারে।খাদ্যে অতিরিক্ত লবণ খেলে হৃৎপিন্ডের সমস্যা,উচ্চ রক্তচাপ ও অন্যান্য সমস্যার সৃস্টি হয়। তাছাড়া গবেষণায় দেখা গেছে যে খাদ্যে অতিরিক্ত লবণ থাকে এবং ঐ সব খাদ্য নিয়মিত গ্রহন করলে পাকস্থলী ও মুথ্যথলির ক্যান্সারের ঝুকি বাড়ে।তাই আমাদের সকলের উচিত স্বাস্থ্য সচেতন হওয়া ও খাদ্যে যথা সম্ভব লবণ ও অতিরিক্ত লবণ জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলা।

যে খাবার গুলো উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর এড়িয়ে চলা উচিত তার মধ্যে অন্যতম গরু, ভেড়া,ছাগলের মাংস।হাই ব্লাড প্রেসার বা উচ্চ রক্তচাপের সমস্যার প্রধান কারণ হলো চর্বি ও ট্রান্স ফ্যাট জাতিয় খাবার। নিয়মিত ফ্যাট জাতীয় খাদ্য খেলে রক্তনালীতে চর্বি জমে রক্তনালী সরু হয়ে যায়।গরু,ভেড়া,ও ছাগলের মাংসে প্রচুর পরিমানে চর্বি বিদ্যমান। চিকিৎসকরা সর্বপ্রথম উচ্চ রক্তচাপ রোগীদের ফ্যাট বা গরু, ছাগলের মাংস কম খাওয়ার জন্য পরার্মশ প্রদান করেন।তাই গরু ,ছাগল, ও ভেড়ার মাংস যতই সুস্বাদু হোক তা বাদ দিথে হবে।যদি আপনি দীর্ঘদিন সুস্থ থাকতে চান।তবে খাদ্য তালিকায় বিভিন্ন মাছ যোগ করতে পারেন।মাছে ফ্যাট বা চর্বি খুবই কম । তাই নিয়মিত মাছ খেলে আমিষের চাহিদা পূরণ হবে।

আচার

যে খাবার গুলো উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর এড়িয়ে চলা উচিত
কোন খাবার সংরক্ষণ করতে প্রিজারভেটি হিসাবে প্রচুর লবণ ব্যবহার করা হয়।আমাদের দেশে যে ধরণের আচার বানানো হয় সেগুলোতে প্রচুর পরিমানে লবণ ব্যবহার করা হয়। আগেই জেনেসি লবণ রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয়। তাই আচার খেতে যতই ভালো লাগুগ তা থেকে বিরত থাকার চেস্টা করা।

 

চিনি

প্রতিদিন যাহারা চিনি বা মিষ্টি জাতীয় খাদ্য খায় তা তাদের অধিকাংশ লোকের শরীরে এটি চর্বি হিসাবে জমা হয়। এর জন্য শরীরের ওজন বেড়ে স্থুলতা দেখা দেয় এবং ক্যান্সার ও হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।তাই অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার খেলে রক্তচাপ বেড়ে যেতে পারে।অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় যারা স্থুলকায় তাদের প্রেসার বাড়ার ঝুঁকি অনেক বেশি।ফলে মিষ্টি খাদ্য খেতে চাইলে চিনির পরিবর্তে মধু খেতে পারেন। সুগার জাতীয় খাদ্য ডায়াবেটিস সহ বিভিন্ন রোগের সৃস্টির জন্য দায়ী।

কপি

আমাদের যে খাবার গুলো উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর এড়িয়ে চলা উচিত কপি ও একটি উপাদান। পবেষকদের মতে ক্যাফেইন রক্তনালীকে সরু করে দেয়।তাছাড়া ক্যাফেইন প্রচুর কর্টিফল ও অ্যাড্রেলিন নিঃসরণ করে রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয় এবং শরীরের নরম টিস্যুতে প্রভাব ফেলে।যাদের শরীরে উচ্চ রক্তচাপ আছে তাদের কপি খাওয়া বেশ ঝুঁকি পূর্ণ,কারণ হঠাৎকরে বেড়ে যাওয়া রক্তচাপের ফলে শরীরের ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা থাকে।তাই যাদের উচ্চ রক্তচাপ আছে তাদের অধিক পরিমানে চা ও কপি খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।সেই ক্ষেত্রে গ্রীন টি বা সবুজ চা পান করতে পারেন।তবে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে যতটা সম্ভব ক্যাপিন যুক্ত খাদ্য এড়িয়ে চলতে হবে।

 

মসলাযুক্ত খাবার

প্রত্যেকের উচিত অতিরিক্ত মসলাযুক্ত খাবার থেকে বিরত থাকা। অধিক মসলাযুক্ত খাদ্য উচ্চ রক্তচাপের সমস্যার ক্ষেত্রে ক্ষতিকারক তাই যতটা সম্ভব এগুলো এড়িয়ে চলতে হবে।

কোমল পানীয় ও অ্যালকোহল

বিভিন্ন গবেষনায় দেখা গেছে যে অতিরিক্ত মদ পান করলে রক্তচাপ অনেক বেড়ে যায় যা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। তাছাড়া অ্যালকোহল ও কোমল পানীয় গুলোতে প্রচুর ক্যালরি আছে যা ওজন বৃদ্ধি করতে সহয়তা করে। অ্যালকোহল যুক্ত পানীয় কিংবা কোমল পানীয় না খেয়ে তাজা ফলের রস কিংবা লেবুর শরবত খাওয়া যেতে পারে।

আরো কিছু পোস্ট আপনার জন্য প্রয়োজনে দেখতে পারেন

নিউট্রা বায়ো প্রোটিন সম্পর্কে বিস্তারিত

https://www.latestbangla.com/archives/3740

দাঁত ক্ষয় হওয়ার কারণ জানলে অবাক হবেন?

https://www.latestbangla.com/archives/3673

মানসিক রোগসমূহের লক্ষণ ও প্রতিকার জেনে নিন

https://www.latestbangla.com/archives/3643

ঢেঁড়সের পানীয় রোগ প্রতিরোধে খুবই কার্যকারী

https://www.latestbangla.com/archives/3520

ফুসফুসের সুরক্ষায় যা করবেন সচেতন হোন খুব সহজেই?

https://www.latestbangla.com/archives/3515

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। প্রতিদিনের আপডেট পেতে আমাদের Facebook লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন।
ধন্যবাদ।

শেয়ার করতে ভুলবেন না

Check Also

এখানে খরচ

এখানে খরচ নাই ওষুধ পাই বিনা মূল্যে

এখানে খরচ নাই,ওষুধ পাই বিনা মূল্যে নরসিংদী সাদত স্মৃতি পল্লী প্রকল্পে যারা ডাক্তার দেখাতে ইচ্ছুক, ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.