Monday , July 4 2022
Home / স্বাস্থ্য সেবা / জ্বর-মাথাব্যথা, সর্দি-কাশি? কড়া ওষুধ না খেয়ে, ঘরোয়া উপায়ে সারিয়ে তুলুন

জ্বর-মাথাব্যথা, সর্দি-কাশি? কড়া ওষুধ না খেয়ে, ঘরোয়া উপায়ে সারিয়ে তুলুন

জ্বর-মাথাব্যথা, সর্দি-কাশি, ঠাণ্ডা-কাশি, ঠাণ্ডা লাগা বা সর্দি-জ্বর এক ধরনের ভাইরাসঘটিত সংক্রামক রোগ যা মানবদেহের ঊর্ধ্ব শ্বাসপথ, বিশেষ করে নাকে আক্রমণ করে।এছাড়া এই রোগে গলবিল, অস্থিগহ্বর ও স্বরযন্ত্রও আক্রান্ত হতে পারে। ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হবার দুই দিন বা তারও আগেই এই রোগের লক্ষণ ও উপসর্গগুলি প্রকাশ পেতে পারে উপসর্গগুলি মধ্যে আছে কাশি, গলাব্যথা, নাসাস্রাব (নাক দিয়ে সর্দি-পানি পড়া), হাঁচি, মাথাব্যথা ও জ্বর। জ্বর-মাথাব্যথা, সর্দিকাশিতে অসুস্থ ব্যক্তি সাধারণত ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যেই সুস্থ হয়ে ওঠে] তবে কিছু উপসর্গ তিন সপ্তাহ পর্যন্ত বজায় থাকতে পারে। সর্দিকাশির হওয়া ব্যক্তির অন্য কোনও স্বাস্থ্য সমস্যা থেকে থাকলে তার নিউমোনিয়া অর্থাৎ ফুসফুস প্রদাহ হতে পারে।

জ্বর-মাথাব্যথা,
জ্বর-মাথাব্যথা, সর্দি-কাশি

জ্বর-মাথাব্যথা, সর্দি-কাশি?

জ্বর-মাথাব্যথা, সর্দি-কাশি? কড়া ওষুধ না খেয়ে সহজ, ঘরোয়া উপায়ে মোকাবিলা করুন-

এ পর্যন্ত দুই শতেরও বেশি শ্রেণীর ভাইরাস শনাক্ত করা গেছে, যেগুলি সর্দি-কাশি সৃষ্টি করতে পারে, তবে এদের মধ্যে রাইনোভাইরাস (অর্থাৎ “নাসাভাইরাস”) সবচেয়ে বেশি পরিলক্ষিত হয়। ভাইরাস বাতাস দ্বারা বাহিত হয়ে আক্রান্ত রোগীর দেহ থেকে ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে থাকে অন্য ব্যক্তির দেহে সরাসরি ছড়াতে পারে; আক্রান্ত রোগী কোনও বস্তু ধরলে সেখানে ভাইরাস লেগে থাকতে পারে, এবং আরেকজন ব্যক্তি সেই বস্তুটি হাতে ধরে পরবর্তীতে মুখে বা নাকে হাত দিলে ভাইরাস পরোক্ষভাবে আক্রমণ করতে পারে। শিশু পরিচর্যা কেন্দ্রে গমনাগমন করলে, ভালো ঘুম না হলে এবং মানসিক চাপের মধ্যে থাকলে সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত হবার ঝুঁকি বেশি থাকে। সর্দি-কাশির উপসর্গগুলি ভাইরাসের দ্বারা দেহকলা আক্রমণ বা ধ্বংসের কারণে সৃষ্ট হয় না, বরং মূলত এগুলি ভাইরাসের বিরুদ্ধে দেহের অনাক্রম্যতন্ত্র তথা প্রতিরক্ষাতন্ত্রের প্রতিক্রিয়ার ফসল।সাধারণ সর্দি-কাশির উপসর্গের সাথে ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাসের আক্রমণের কারণে সৃষ্ট রোগের উপসর্গের মিল থাকলেও ইনফ্লুয়েঞ্জার ক্ষেত্রে এই উপসর্গগুলির তীব্রতা অনেক বেশি হয়। অধিকন্তু ইনফ্লুয়েঞ্জা হলে নাক দিয়ে পানি পড়ার সম্ভাবনা সাধারণত কম থাকে।

জ্বর-মাথাব্যথা, সর্দি-কাশির জন্য কোনও টিকা নেই। সর্দি-কাশি প্রতিরোধের প্রধান উপায় হল হাত ধুয়ে পরিষ্কার করে রাখা, আধোয়া হাতে চোখ, নাক বা মুখ স্পর্শ না করা, এবং সর্দি-কাশিতে অসুস্থ ব্যক্তির থেকে দূরে থাকা। রোগ প্রতিরোধমূলক মুখোশ পড়লে উপকার হয়, এমন কিছু প্রমাণও পাওয়া গেছে। সর্দি-কাশির জন্য কোনও চিকিৎসা বা ঔষধও নেই, তবে এর উপসর্গগুলি প্রশমন করা সম্ভব। কিছু চিকিৎসা গবেষণার ফলাফল অনুযায়ী উপসর্গগুলি প্রকাশ পাবার ঠিক পরপরই ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দস্তাভিত্তিক ঔষধ ব্যবহার করলে উপসর্গের তীব্রতা ও স্থায়িত্ব উভয়ই হ্রাস পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। স্টেরয়েডহীন প্রদাহনিরোধী ঔষধ (NSAID) যেমন আইবুপ্রোফেন প্রদাহজনিত ব্যথা কমাতে সাহায্য করতে পারে। তবে ব্যাকটেরিয়া নিরোধক তথা অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করা উচিত নয়। আর কফের ঔষধের কার্যকারিতার তেমন ভাল প্রমাণ নেই।

সর্দি-কাশি মানুষের মধ্যে সবচেয়ে ঘনঘন সংঘটিত সংক্রামক ব্যাধি। গড়ে একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি প্রতি বছরে দুই থেকে তিন বার এবং একটি শিশু প্রতি বছরে গড়ে ছয় থেকে আটবার সর্দি-কাশিতে ভুগতে পারে। তবে শীতকালে এই সংক্রমণটি বেশি পরিলক্ষিত হয়। এ কারণেই হয়ত বাংলায় এটিকে “সর্দি-কাশি” বা “ঠাণ্ডা-কাশি” বলে। “সর্দি” কথাটি একটি ফার্সি শব্দ থেকে এসেছে যার অর্থ “ঠাণ্ডা ভাব”। সমগ্র মানব ইতিহাস জুড়েই সর্দি-কাশির সংক্রমণ হয়ে এসেছে।

জ্বর-মাথাব্যথা, জ্বর সর্দি কাশির লক্ষণ ও উপসর্গ
সর্দিজনিত লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে কাশি, সর্দি, হাঁচি, অনুনাসিক জঞ্জাল এবং গলা ব্যথা, কখনো কখনো পেশী ব্যথা, ক্লান্তি, মাথা ব্যথা এবং ক্ষুধা হ্রাস পায়। প্রায় ৪০% ক্ষেত্রে গলাতে কালশিটে এবং ৫০% ক্ষেত্রে কাশি থাকে৷ যখন এই সমস্যা ঘটে তখন পেশী ব্যথা প্রায় অর্ধেক সময় থাকে। প্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রে সাধারণত জ্বর লক্ষণ হিসাবে দেখা যায় না। তবে এটি শিশু এবং অল্প বয়স্ক শিশুদের মধ্যে এটি সাধারণ লক্ষণ। কাশি সাধারণত সহনীয় ইনফ্লুয়েঞ্জার তুলনায় হালকা হয়। সাধারণত কাশি এবং জ্বর প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে ইনফ্লুয়েঞ্জা হওয়ার বড় সম্ভাবনা নির্দেশ করে। দুইটি এক না হলেও দুটি অবস্থার মধ্যে অনেকটাই মিল রয়েছে৷ এই সমস্যা সাধারণত সর্দি সৃষ্টিকারী বেশ কয়েকটি ভাইরাস সংক্রামিত সংক্রমণ থেকে হতে পারে

ঋতু পরিবর্তনের এই সময়টা আমাদের শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক! জ্বর-মাথাব্যথা, ঘুষঘুষে জ্বর, সর্দি-কাশি, বুকে কফ জমা লেগেই থাকে। ডাক্তারের দ্বারস্থ হলেই কড়া কড়া অ্যান্টিবায়োটিক! ফল ? শরীর ক্লান্ত, খিদে নেই, কাজ করার এনার্জি খতম! কাজেই, প্রথমেই অ্যান্টিবায়োটিক না খেয়ে ঘরোয়া উপায়ে জ্বর, সর্দি-কাশির মোকাবিলা করুন–

পেঁয়াজ- সমপরিমাণে পেঁয়াজের রস, লেবুর রস, মধু এবং জল একসঙ্গে মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। এই মিশ্রণটা হালকা ঠাণ্ডা করে দিনে ৩-৪বার খান। এছাড়া কাঁচা পেঁয়াজও চিবিয়ে খেতে পারেন। সর্দি-কাশি পালাবে!

হলুদ- হলুদে রয়েছে কারকুমিন যা বুক থেকে কফ, শ্লেষ্মা দূর করে বুকের ব্যথা কমায়। এর অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান গলা ব্যথা, বুকের ব্যথা দূর করে। এক গ্লাস হালকা গরম জলে এক চিমটি হলুদের গুঁড়ো মিশিয়ে প্রতিদিন কুলকুচি করুন। আরাম পাবেন। এছাড়া এক গ্লাস দুধে অর্ধেক চা চামচ হলুদগুঁড়ো মিশিয়ে ফোটান । ২ চা চামচ মধু ও সামান্য গোলমরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে মিশ্রণটি দিনে ২-৩বার খান। উপকার পাবেন।

জ্বর-মাথাব্যথা সারিয়ে তোলার উপায়

লেবু এবং মধু- লেবু জলে ১ চা-চামচ মধু মিশিয়ে খান। মধু শ্বাসযন্ত্রের ব্যাকটিরিয়া ধ্বংস করে, বুক থেকে কফ দূর করে গলা পরিষ্কার রাখে।

গরম জলের ভাপ- ফুটন্ত গরম জলে মেন্থল মিশিয়ে নিন। এবার মাথার উপর টাওয়েল চাপা দিয়ে বড় দম নিয়ে গরম জলের ভাপ নিন। দিনে ২ বার অন্তত ১০ মিনিট করে এরকম করুন। বুকে জমে থাকা কফ খুব সহজেই বেরিয়ে আসবে।

নুন জল- বুকে জমা কফ দূর করতে, দিনে দু-তিনবার উষ্ণ গরম নুন জল দিয়ে গার্গল করুন। আরাম পাবেন। নুন শ্বাসযন্ত্র থেকে কফ দূর করতে সাহায্য করে।

জ্বরের এন্টিবায়োটিক, জ্বর সর্দি কাশির ঔষধের নাম, জ্বর হলে করণীয়, জ্বরের ঔষধ, জ্বরের দোয়া, জ্বরের এন্টিবায়োটিক ওষুধের নাম, জ্বর মাথা ব্যাথার ঔষধের নাম, জ্বর ঠোসা, জ্বর কমানোর দোয়া, জ্বর হলে কি খাওয়া উচিত, জ্বর কমানোর ঔষধ, জ্বর কমানোর উপায়, জ্বর অসুস্থতা নিয়ে স্ট্যাটাস, জ্বর অর্থ, জ্বর অ্যান্টিবায়োটিক, জ্বর আনার উপায়, জ্বর আসার উপায়, জ্বর আসলে করনীয়, জ্বর আসে আবার চলে যায়, জ্বর আসে জাহান্নামের আগুন থেকে, জ্বর আসলে শীত লাগে কেন, জ্বর আসে কেন, জ্বর আসার লক্ষণ, প্রিয় জ্বর আর কিছুদিন থাকো, জ্বর আর মাথা ব্যথা, জ্বর আর কাশি, জ্বর ইংরেজি কি, জ্বর ইংরেজি, জ্বর হলে কি, জ্বর আসে যায়, জ্বর হলে কি করবেন, জ্বর উঠানামা, জ্বর উঠলে কি দোয়া পড়তে হয়, জ্বর উঠলে করনীয়, জ্বর উঠানোর উপায়, জ্বর উপসর্গ, জ্বর কমানোর ঘরোয়া উপায়, পাতলা পায়খানা ও জ্বর, শরীর ব্যথা ও জ্বর, মাথা ব্যাথা ও জ্বর, গায়ে ব্যথা ও জ্বর, গলা ব্যাথা ও জ্বর, শুকনো কাশি ও জ্বর, শিশুর কাশি ও জ্বর, আমাশয় ও জ্বর, জ্বর হলে কি করনীয়, জ্বর এর ইংরেজি, জ্বর এর ইংরেজি কি, জ্বর এর এন্টিবায়োটিক, জ্বর এবং পাতলা পায়খানা, জ্বর এর ইংলিশ কি, জ্বর এর লক্ষন, জ্বর এর হাদিস, জ্বর এন্টিবায়োটিক, জ্বর হলে কী করতে হয়, এই জ্বর, এই সময় জ্বর হলে করণীয়, এই সময়ে জ্বর হলে, জ্বর ও শরীর ব্যথা হলে করণীয়, জ্বর ও বমি হলে করণীয়, জ্বর ও পাতলা পায়খানা, জ্বর ও শরীর ব্যাথার ঔষধ, জ্বর ও মাথা ব্যাথা হলে করণীয়, জ্বর ও পাতলা পায়খানা হলে করণীয়, জ্বর ও সর্দির ঔষধ, জ্বর ও শরীর ব্যাথা, জ্বর ও গলা ব্যথা, জ্বর ঔষধ, জ্বর ঔষধের নাম, জ্বরের ঔষধের নাম কি, জ্বরের ঔষধ কি, জ্বরের ঔষধ এর নাম, জ্বরের ঔষধ খাওয়ার নিয়ম, জ্বরের ঔষধি গাছ, জ্বরের চিকিৎসা কি, জ্বর কেন হয়, জ্বর কত ডিগ্রি, জ্বর কত প্রকার, জ্বর কি, জ্বরের খাবার, খড় জ্বর কি, জ্বরে খিচুনি হলে, খুব জ্বর হলে করণীয়, খিচুনি জ্বর, খুব জ্বর হলে কি করা উচিত, job খবর, খারাপ জ্বর, kahan jor payenge, জ্বর গলা ব্যাথার ঔষধ, জ্বর গোটা, জ্বর গায়ে ব্যথা, গর্ভাবস্থায় জ্বর হলে করণীয়, গরুর জ্বর ও প্রতিকার, গায়ে জ্বর হলে কি করনীয়, গর্ভাবস্থায় জ্বর হলে ঔষধ, গরুর জ্বর হলে করণীয়, g jor, জ্বর ঘরোয়া চিকিৎসা, জ্বরের ঘরোয়া চিকিৎসা, ঘুসঘুসে জ্বর, জ্বরের ঘরোয়া ওষুধ, ঘুষঘুষে জ্বর, জ্বরের ঘোরে প্রলাপ, জ্বরের ঘোরে কবিতা, জ্বরের ঘরোয়া প্রতিকার, জ্বর আসার কারণ, জ্বর হওয়ার কারণ, জ্বরের চিকিৎসা, জ্বর ছাড়া কি করোনা হতে পারে, ছাগলের জ্বর হলে কি করা উচিত, ছাগলের জ্বর, ছেড়ে ছেড়ে জ্বর আসার কারণ, ছেড়ে ছেড়ে জ্বর, জ্বর সোটা, ছোটদের জ্বর হলে করণীয়, জ্বর জ্বর ভাব হলে করনীয়, জ্বর জ্বর ভাব অর্থ, জ্বর জ্বর ভাব হলে কি করনীয়, জ্বর জ্বর কি শব্দ, জ্বর জ্বর ভাব হলে করণীয়, জ্বর জ্বর ভাব meaning in english, জ্বর জ্বর, j jor, জ্বর ঝাড়ার মন্ত্র, জ্বর কাকে বলে, টাইফয়েড জ্বর হলে খাবার, টাইফয়েড জ্বর কেন হয়, টাইফয়েড জ্বর হলে করণীয় কি, টাইফয়েড জ্বর হলে কি গোসল করা যায়, টাইফয়েড জ্বর কি ছোঁয়াচে, টাইফয়েড জ্বর কি, জ্বরের ট্যাবলেট, টাইফয়েড জ্বর হলে কি করনীয়, টাইফাইড জ্বর, জ্বর কমছে না, জ্বর ঠান্ডা, জ্বর ঠোসা সারানোর উপায়, জ্বর ঠোসার ঔষধ, জ্বর ঠোসা কেন হয়, জ্বর ঠোসা meaning in english, জ্বর ঠোসার দাগ দূর করার উপায়, জ্বর ঠান্ডা কাশি, ডেঙ্গু জ্বর, ১০৪ ডিগ্রি জ্বর হলে করণীয়, ১০২ ডিগ্রি জ্বর হলে করণীয়, job ঢাকা, জ্বর তাপমাত্রা, জ্বর থেকে মুক্তির দোয়া, জ্বর থেকে মুক্তি পাওয়ার ঘরোয়া উপায়, জ্বর থেকে মুক্তি লাভের দোয়া, জ্বর থেকে মুক্তির উপায়, জ্বর থেকে মুক্তি পাওয়ার দোয়া, জ্বর থেকে বাঁচার দোয়া, জ্বর থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়, জ্বর থেকে মুক্তি পাওয়ার দোয়া বাংলা, জ্বর দোয়া, জ্বর দূর করার দোয়া, জ্বর দূর করার উপায়, জ্বর দূর করার ঘরোয়া উপায়, দ্রুত জ্বর কমানোর উপায়, কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসার কারণ, কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসলে করনীয়, জ্বর এর লক্ষণ, জ্বরের লক্ষণ, ধ্বনি জ্বর, জ্বর কত ধরনের, জ্বর মাথা ধরা, অনেকদিন ধরে জ্বর, জ্বর হলে কি ধরনের খাবার খাওয়া উচিত, জ্বর না কমলে করণীয়, জ্বর নিয়ে হাদিস, জ্বর না কমার কারণ, জ্বর নিয়ে কবিতা, জ্বর নিয়ে উক্তি, জ্বর নিরাময়ের দোয়া, জ্বর নিয়ে পোস্ট, জ্বর না কমলে কি করব, জ্বর পরিমাপ, জ্বর প্রতিরোধ করার উপায়, জ্বর পরবর্তী দুর্বলতা, জ্বর পরবর্তী খাবার, জ্বর পরবর্তী দূর্বলতা, জ্বর প্রতিশব্দ, প্যারাটাইফয়েড জ্বর, জ্বরের প্রকারভেদ, po joe, জ্বর ফোঁড়া, জ্বর ফোস্কা, জ্বরের ফজিলত, ফাইলেরিয়া জ্বর, ফ্লু জ্বর কতদিন থাকে, জ্বর নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস, জ্বর হলে কি ফল খাওয়া উচিত, জ্বর হলে কোন ফল খাওয়া উচিত, জ্বর বানানোর উপায়, জ্বর বমি, জ্বর বেশি হলে করনীয়, জ্বর বাধানোর উপায়, জ্বর বমি বমি ভাব, জ্বর ব্যথা, জ্বর বমি পাতলা পায়খানা, জ্বর বিশেষজ্ঞ ডাক্তার, জ্বর ভালো হওয়ার দোয়া, জ্বর ভালো করার উপায়, জ্বর ভালো না হওয়ার কারণ, জ্বর ভালো হওয়ার উপায়, জ্বর ভাল হওয়ার দোয়া, জ্বর ভালো হবার দোয়া, জ্বর ভালো করার দোয়া, জ্বর ভাতা টাইম, জ্বর মাপার নিয়ম, জ্বর মাপার যন্ত্র, জ্বর মাপার থার্মোমিটার দাম কত, জ্বর মাথা ব্যাথার ঔষধ, জ্বর মাথা ব্যাথা ও শরীর ব্যাথা, জ্বর মাপার যন্ত্রের নাম কি, জ্বর মাপার থার্মোমিটার দাম, jor jo, জ্বর মাপার যন্ত্রের দাম, জ্বর হলে যে দোয়া পড়তে হয়, জ্বর মাথা যন্ত্রণা, জ্বর হলে যা খাবেন, jo jor mero chale, jojo rabbit, jo jor mera chale, যে বিকেলে জ্বর আসে, জ্বর হলে যে দোয়া, রাতে জ্বর আসার কারণ, রাতে জ্বর আসা, রাতে জ্বর আসার কারণ ও প্রতিকার, রাতে জ্বর আসে আবার দিনে চলে যায়, জ্বরের রোগীর খাবার, জ্বরের রুকাইয়া, রিকেটশিয়া জ্বর, ডেঙ্গু জ্বর রচনা, রাতে জ্বর কেন হয়, জ্বরে লেবুর উপকারিতা, জ্বরের লক্ষণ ও প্রতিকার, লিভার জ্বর, জ্বরের লক্ষণসমূহ, জ্বরের লক্ষণ কি কি, jor-l, আমার জ্বর জ্বর লাগছে কোন শব্দের উদাহরণ, l jor, জ্বর শব্দের অর্থ কি, জ্বর শরীর ব্যাথা, শিশুর জ্বর ১০২ হলে করণীয়, শিশুর জ্বর কমানোর ঘরোয়া উপায়, শিশুর জ্বর কমানোর দোয়া, শিশুর জ্বর, শিশুর জ্বর হলে করণীয়, শিশুর জ্বর কাশি, সকালে জ্বর, থেকে থেকে জ্বর, সাধারণ জ্বর, joe shaw, জ্বর সম্পর্কে হাদিস, জ্বর সর্দি কাশি, জ্বর সর্দি, জ্বর সর্দি মাথা ব্যাথা ঔষধ, জ্বর সর্দি কাশির ঔষধ, জ্বর সারানোর উপায়, জ্বর সদি, জ্বর হলে কি ঔষধ খাওয়া উচিত, জ্বর হলে ডিম খাওয়া যাবে কি, জ্বর হলে কি ঔষধ খাব, জ্বর হলে কি কি ঘরোয়া চিকিৎসা করা হয়, জ্বর হলে কি স্যালাইন খাওয়া যাবে, জ্বর হলে কি খাওয়া উচিত নয়, george h, জ্বর হয় কেন, জ্বর হয়েছে, জ্বর হয়, জ্বর হয়েছে বলে কবিতা, মঙ্গলবার ইঁদুরের জ্বর হয়েছে, রাতে জ্বর হয় কেন, কত তাপমাত্রায় জ্বর হয়, টাইফয়েড জ্বর হয়েছে, জ্বরের, 0 jor na bejor, job 0 cancelled because sparkcontext was shut down, job 06 interim nice, job-012, job-007, job 000 operator, job 1, job 14, job 11, job 12, job 10, job 19 25, job 15, job 1 kjv, 1 jor bagh, job 2, job 23, job 24, job 28, job 2020, job 22 28, job 24 pk, job 22 21, job 38, job 35, job 33 4, job 3 25, job 34 32, job 34 10, job 360, job 38 11, jo3, job 42, job 41, job 42 2, job 40 15, job 4u, job 4, job 5 9, job 5 19, job 5, job 509, job 5 21-23, job 5 17, job 5 commentary, job 5 kjv, job 6, job 6 kjv, job 6 25, job 6 8, job 6 commentary, job 66, job 6 14, job 63, jobs77, job 715, job 7 1, jobs77 canada, job 7 news, job 7, job 7 commentary, job 76, জ্বর হলে করনীয় কি, জ্বর হলে কি করতে হয়, job 8, job 8th pass, job 8 6, job 8 7, job 8 21, job 8 5-7, job 8 commentary, job 8 5-7 explicacion, job9u.in, job 9 10, job9 epaper pdf download, job 9th pass, job 9 pass, job 9 to 5, jor 9, job 9 commentary, 9 jor bangla serial, 9 jor, 9 jor bangla.

জ্বর-মাথাব্যথা

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। প্রতিদিনের আপডেট পেতে আমাদের Facebook লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন।
ধন্যবাদ।

শেয়ার করতে ভুলবেন না

Check Also

এখানে খরচ

এখানে খরচ নাই ওষুধ পাই বিনা মূল্যে

এখানে খরচ নাই,ওষুধ পাই বিনা মূল্যে নরসিংদী সাদত স্মৃতি পল্লী প্রকল্পে যারা ডাক্তার দেখাতে ইচ্ছুক, ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.