Saturday , July 2 2022
Home / আঞ্চলিক / ঠাকুরগাঁওয়ে পশুরহাট বন্ধের সিদ্ধান্ত মানছেন না ইজারাদারেরা

ঠাকুরগাঁওয়ে পশুরহাট বন্ধের সিদ্ধান্ত মানছেন না ইজারাদারেরা

চারদিকে হইহুল্লোড় আর ক্রেতা-বিক্রেতাদের হাঁকডাক। মানুষ গায়ে গা লাগিয়ে কিনছে পছন্দের পশু। অধিকাংশ লোকের মুখে মাস্ক নেই। কেউ কেউ মাস্ক নামিয়ে রেখেছেন থুতনিতে। আবার কেউ যত্ন করে পুরে রেখেছেন বুকপকেটে।

ঠাকুরগাঁওয়ে
ঠাকুরগাঁওয়ে পশুরহাট বন্ধের সিদ্ধান্ত মানছেন না ইজারাদারেরা

ঠাকুরগাঁওয়ে পশুরহাট বন্ধের সিদ্ধান্ত মানছেন না ইজারাদারেরা

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে এক সপ্তাহের জন্য হাট বন্ধের ঘোষণা করা হলেও তা অমান্য করে বসছে ঠাকুরগাঁও জেলার পশুর হাটগুলো। এতে আরও বেশি করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

চলতি মাসে আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে যায় করোনা সংক্রমণের হার। এ অবস্থায় ১৭ জুন থেকে আজ ২৩ জুন পর্যন্ত সাত দিনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি। এই বিধিনিষেধের মধ্যে জেলার সব পশুর হাট এক সপ্তাহ বন্ধ করে রাখার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু কমিটির এ সিদ্ধান্ত মানছেন না ইজারাদারেরা, বসছে পশুর হাট। এসব হাট করোনার সংক্রমণ ছড়ানোর অন্যতম স্থান বলে মনে করা হচ্ছে।

স্থানীয় শিক্ষক প্রদীপ রায় বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ে যেকোনো সময়ের তুলনায় এখন করোনার সংক্রমণ বেশি। এ কারণে হাটগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তারপরও কীভাবে হাট বসছে, বুঝতে পারছেন না তিনি। হাটে পশু কিনতে আসা শহরের হাবিব হোসেন বলেন, হাট বন্ধ রাখার কথা থাকলেও ইজারাদারেরা মানছেন না। হাট তো স্বাভাবিক সময়ের মতোই চলছে।

খবর পেয়ে হাটে যান হরিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম আওরঙ্গজেব। হাট থেকে লোকজনকে সরিয়ে দিতে ইজারাদারদের তাগিদ দেন তিনি। একপর্যায়ে ওসি ও তাঁর সহকর্মীরা লোকজনকে সরাতে লাগলেন। কিন্তু এতে লোকের চাপ সামাল দেওয়া সম্ভব হচ্ছিল না। ফলে হাট চলতে থাকে।

সম্প্রতি সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) এক প্রতিবেদনে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়ানোর সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ স্থান হিসেবে হাটবাজারকে চিহ্নিত করা হয়েছে। এরপরও নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গত রোববার রানীশংকৈলের নেকমরদ হাট ও গতকাল মঙ্গলবার হরিপুরের জাদুরানী হাটে পশু কেনাবেচা হয়েছে। এ ছাড়া সদরের খোঁচাবাড়ি ও বালিয়াডাঙ্গীর লাহিড়ীহাটে পশু কেনাবেচা না হলেও লোকসমাগম ছিল। গতকাল হরিপুরের জাদুরানী হাটে সরেজমিনে দেখা যায়, মানুষ গিজগিজ করছে। স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মানার কোনো বালাই নেই।

হাট বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়ে মাইকিং করা হয়েছে বলে জানান হরিপুর উপজেলার আমগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পাভেল তালুকদার। মাইকিং করার পরও ক্রেতা-বিক্রেতারা হাটে আসছেন। হাটের ইজারাদারের প্রতিনিধি মুক্তার হোসেন বলেন, হাট বন্ধের মাইকিং করা হয়েছে। এরপরও ক্রেতা-বিক্রেতা চলে এসেছেন।

হরিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবদুল করিম বলেন, ইজারাদারকে হাট বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। এরপরও হাট বসলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঠাকুরগাঁওয়ের সিভিল সার্জন মো. মাহফুজার রহমান সরকার বলেন, জেলার করোনা পরিস্থিতি যেকোনো সময়ের তুলনায় খারাপ। এ বিবেচনায় সাত দিনের বিধিনিষেধ দিয়ে জেলার সব পশুর হাট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সমাগম ও হাট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত থাকলেও তা মানা হচ্ছে না। হাটে জনসমাগম বন্ধ করা না গেলে করোনার সংক্রমণ আরও ভয়াবহ হতে পারে।

সূত্র : প্রথমআলো

লকডাউনে পোশাকশ্রমিকদের পাশাপাশি মালিকেরাও দুর্ভোগে

লকডাউনে পোশাকশ্রমিকদের পাশাপাশি মালিকেরাও দুর্ভোগে

তৈরি পোশাকের এই দশক চ্যালেঞ্জের, আবার সম্ভাবনারও

তৈরি পোশাকের এই দশক চ্যালেঞ্জের, আবার সম্ভাবনারও

চামড়াশিল্পের ঋণে বিশেষ সুবিধা

চামড়াশিল্পের ঋণে বিশেষ সুবিধা

রাজশাহী মেডিকেলে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

রাজশাহী মেডিকেলে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

একা ঘরে হাউমাউ করে কাঁদছি, কী উত্তর দেব মুখ্যমন্ত্রীকে :পিঙ্কি বন্দ্যোপাধ্যায়?

একা ঘরে হাউমাউ করে কাঁদছি, কী উত্তর দেব মুখ্যমন্ত্রীকে :পিঙ্কি বন্দ্যোপাধ্যায়?

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। প্রতিদিনের আপডেট পেতে আমাদের Facebook লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন।
ধন্যবাদ।
Icon for this message
Latestbangla.com
News & Media Website

শেয়ার করতে ভুলবেন না

Check Also

রোহিঙ্গাদের

রোহিঙ্গাদের টিকার আওতায় আনা হচ্ছে জেনে নিন

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে করোনার প্রতিরোধক টিকার আওতায় আনতে যাচ্ছে সরকার। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.