Thursday , July 7 2022
Home / স্বাস্থ্য সেবা / লম্বা হওয়ার কিছু শারীরিক চর্চা বা ব্যায়াম

লম্বা হওয়ার কিছু শারীরিক চর্চা বা ব্যায়াম

লম্বা হওয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্ব পূর্ন যেই বিষয়টি তা হচ্ছে “খাওয়া দাওয়া, ঘুম এবং শারীরিক চর্চা”। খাওয়া দাওয়া এবং ঘুম এর অবদান ৬০ শতাংশ আর শারীরিক চর্চার অবদান ৪০ শতাংশ।
আমরা এই বিষয়ে আমাদের আগের পোস্ট এই উল্লেখ করেছি, তাহলে শুরু করা যাক আমাদের আগের পোস্ট এর শেষ অংশ থেকেইঃ

লম্বা হওয়ার
লম্বা হওয়ার কিছু শারীরিক চর্চা বা ব্যায়াম

লম্বা হওয়ার কিছু শারীরিক চর্চা বা ব্যায়াম

 

” লম্বা হওয়ার ব্যায়াম প্রধাণত ৩ প্রকার ঃ
১. স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ (Stretching Exercise)
২. লেগস এক্সারসাইজ (Legs Exercise)
৩. সাঁতার, সাইক্লিং ও ঝুলে থাকা

ব্যায়াম

লম্বা হওয়ার কিছু শারীরিক চর্চা বা ব্যায়াম
ব্যয়াম এর ক্ষেত্রে ৩ টি প্রকার ই খুব গুরুত্ব পূর্ন। এই ৩ ধরণের ব্যায়াম এ যাওয়ার আগে আমরা জেনে নেই কত সময় ধরে আমাদের ব্যায়াম করতে হবে।
দৈনিক ৩০-৪৫ মিনিট করে, সপ্তাহে ৫-৬ দিন পর্যন্ত ব্যায়াম যথেষ্ট। নির্দিষ্ট কোন সময় নেই। যে কোন সময়ে ব্যায়াম করলেই হবে। তবে আমরা এখানে সময় উল্লেখ করে দিচ্ছি (যদিও আপনার পছন্দ মতো সময়ে ব্যায়াম করলেই হবে)। কেউ যদি কোন দিন এর রুটিন মিস করে ফেলে তাহলে সেটা নিয়ে ঘাবড়ানোর কিছু নেই। সেই দিন টাকে “ছুটির দিন” হিসেবে ধরে বাকি দিন গুলো নিয়মিত করলেই হবে। কেউ কেউ কোন কোন সপ্তাহে ৫ দিন এর জায়গায় ৩ দিন করতেই পারে, এতে নিরাশ হয়ে ব্যায়াম বন্ধ করে দেয়া টা বোকামি হবে। বরং যে টানা মাসের পর মাস কষ্ট করে যেতে পারবে তার পক্ষেই সম্ভব হবে ব্যায়াম করা।
শুরু করার আগে সতর্কতাঃ অনেকেই আছে যারা প্রথম ১ ২ সপ্তাহ খুব উদ্যম নিয়ে শুরু করবে এবং প্রয়োজনের অতিরিক্ত ব্যায়াম করবে এবং একটা সময়ে সব শক্তি খুইয়ে ব্যায়াম করা বাদ দিয়ে দিবে। এমন যদি হয় তাহলে তার পক্ষে আর লম্বা হওয়া সম্ভব হবে না। বরং ধীরে ধীরে এবং নিয়মিত ভাবে যদি ব্যায়াম করা হয় তাহলেই আসলে সম্ভব হবে লম্বা হওয়া।

মেদ কমান মাত্র ৩ টি ব্যায়াম করে
আমাদের প্রদত্ত ব্যায়াম গুলো খুব সহজ। ঘরে বসেই টিভি দেখতে দেখতেই করা যায়। শুধু কষ্ট করে নিয়মিত ব্যায়াম করার বিষয়টি মাথায় রাখলেই হবে।
ঠিক আছে তাহলে। যারা যারা আগ্রহী তাঁরা এবার পুরো মনযোগ দিয়ে নতুন করে পড়া শুরু করুনঃ

১। স্ট্রেচিং এক্সারসাইজঃ
নাম শুনলেই বোঝা উচিত স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ এর কাজ কি। এই ধরণের ব্যায়াম গুলো হচ্ছে শরীর কে প্রশস্ত করার ব্যায়াম। এই ব্যায়াম সব সময় শরীর কে টান টান করে হাতে, পায়ে, মেরুদন্ডের বিভিন্ন জয়েন্ট এ চাপ প্রয়োগ করে করতে হয়। এই ধরণের ব্যায়াম গুলো খুব ধৈর্য্য সহকারে করতে হবে।
প্রতিটি ব্যায়াম কতক্ষন ধরে করতে হবে, কত বার রিপিট করতে হবে এবং কোথায় চাপ প্রয়োগ করতে হবে তা বলে দেয়া হবে।
——————————————-
স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ আবার ২ প্রকারঃ
– প্রাইমারি এবং
– এডভান্সড
প্রাইমারি স্ট্রেচিং এক্সারসাইজঃ
====================

১।ক) চেয়ারে হাত রেখে এক ফুট দূরত্ব রেখে চেয়ারের পিছনে দাঁড়ান । এখন দু হাত দিয়ে চেয়ারে ভর করেই বাম পা টিকে যথাসম্ভব পেছনের দিকে ঠেলে দিন। এবার বাম পা টিকে নামিয়ে আনুন এবং ডান পা টি দিয়েও অনুরুপ কাজটি করুন।
পা উঠানোর পর চেষ্টা করতে হবে অন্তত ১০ সেকেন্ড স্থির করে রাখার। ৫-১০ বার পুনরাবৃত্তি করতে হবে। চাপ পড়বে যেই পা উপরে আছে তার অপর পা (অর্থাৎ মাটির সাথে লগোয়া পা) এর হাটুর পিছনের নাড়ী তে।
যত দিন যাবে ততো চেষ্টা করতে হবে পা আরও উপরে উঠানোর। প্রথম কিছু দিন অল্প উচ্চতায় , তারপর কিছু দিন আরও বেশী উচ্চতায় এভাবে যতটূকু সম্ভব। তবে সাধ্যের বাইরে যাওয়া যাবে না। কিছু দিন এই ব্যায়াম করার পর আপনা আপনি ই পা অনেক উপরে উঠে যাবে।
——————————————-

পড়ুন উচ্চতা বাড়াতে অভ্যাস করুন এই ৭টি ব্যায়াম
নিয়মিত ব্যায়াম ওষুধের মতোই উপকারী

১।খ)এবার উঠোনে বা ঘরের মেঝেতে পিঠ রেখে শুয়ে পরুন । এবার বাম পা টিকে উপরে উঠিয়ে হাঁটু বরাবর ভাঁজ করে বুকের ছাতি পর্যন্ত নিয়ে আসুন এবং একইসাথে মাথাকেও একই অবস্থানে আনার চেষ্টা করুন। যখন আপনার হাটু আপনার মুখমন্ডলের থুতনিকে স্পর্শ করবে সে মুহূর্তে কিছুক্ষণ স্থির থাকুন। এরপর আবার স্বাভাবিক অবস্থানে ফিরে এসে অপর পা দিয়েও একই কাজটি করুন। এভবে দু পায়ে দশবার এ ব্যায়ামটি করুন। হাটু থুত্নিতে লাগানোর পর ১০-২০ সেকেন্ড স্থির থাকতে হবে।
এই ব্যায়াম এ চাপ পড়বে যেই পা উপরে আছে সেই পায়ের হাটুর পিছনের নাড়ি তে।
যখন হাটু উপরে উঠানোর সময় থুতনি পর্যন্ত যাওয়া অবস্থায় শ্বাস ভিতরে নিতে হবে ধীরে ধীরে, এবং ফুসফুস অক্সিজেন দ্বারা পূর্ন করতে হবে। যখন হাটু থুত্নির কাছে লেগে থাকবে তখন শ্বাস স্থির রাখতে হবে। এবং পরে হাটু ছেড়ে আবার স্বাভাবিক অবস্থানে রাখার সময় ধীরে ধীরে শ্বাস ছাড়তে হবে। প্রথম প্রথম শ্বাস প্রশবাস এর বিষয়টি খুব কঠিন। কিন্তু এটি খুব গুরুত্বপূর্ন। শ্বাস ধীরে ধীরে নেয়া, তারপর তা ধরে রাখা এবং পরবর্তীতে তা ধীরে ধীরে ছাড়ার ফলে আপনার গ্রোথ হরমোন স্বাভাবিক এর চেয়ে আরও প্রচুর পরিমাণ এ নিঃসরন হবে। প্রথম প্রথম এই বিষয়টি কেউ পারবে না। তবে ধীরে ধীরে ১ ২ সপ্তাহ যাওয়ার পর পারতে হবে।
——————————————-

১।গ)হাতদুটি একত্রে উপরে উঠিয়ে পরস্পরের সাথে একত্র করুন। হাত দুটি পরস্পরের সাথে একত্র হবে তালুর উল্টো পিঠ বরাবর। এবার হাটু বরাবর একবার ডান দিকে একেবারে কাঁত হয়ে এবং একবার বাম দিকে একবারে কাঁত হউন। এভাবে দশ বার করে করুন। এ কাজটি আস্তে আস্তে সময় নিয়ে করুন কিন্তু কোনভাবেই হাতের বন্ধন ঢিলে করা যাবে না।
সর্বোচ্চ অবস্থানে পৌছানোর পর ১০ সেকেন্ড স্থিক থাকতে হবে। অর্থাৎ ডান দিকে কাত হওয়ার পর সর্বোচ্চ ডান এ থাকা অবস্থায় ১০ সেকেন্ড স্থিক তারপর আবার সর্বোচ্চ বাম এ থাকা অবস্থায় ১০ সেকেন্ড স্থির থাকতে হবে।
এই ব্যায়াম এ চাপ পড়বে একই সাথে হাত এর বগল থেকে শুরু করে কোমড় পর্যন্ত অংশে এবং মেরুদন্ডে। খুব ই গুরুত্ব পূর্ন ব্যায়াম।
——————————————–

১।ঘ) এবারো দাঁড়ানো অবস্থাতে থেকেই আপনার হাতের তালু-কে পা এর গোড়ালির যত কাছে সম্ভব নিয়ে ছোঁয়ান। এসময়ে আপনার দুই পায়ের মধ্যে প্রায় ১৮ ইঞ্চি পরিমান স্থান রাখবেন। এভাবে পাঁচবার করুন। সর্বোচ্চ অবস্থানে যাওয়ার পর ৫ থেকে ২০ সেকেন্ড স্থির থাকতে হবে।
এই ব্যায়াম এ চাপ পড়বে উভয় পা এর হাটুর পিছনের অংশে।
———————————————

১।ঙ) দাড়িয়ে থাকা অবস্থায় আপনার পা দুটিকে পরষ্পর হতে দূরে রাখুন। এবার কোমরে হাতবেধে চেয়ারে বসবার ভঙ্গিতে হাঁটু ভেঙ্গে বসে পড়ুন। এরপর হাতদুটিকে সামনে মেলে ধরুন। এভাবে ১০ বার করুন।
এই বেয়ামে খেয়াল রাখতে হবে , বসার মতো ভঙ্গি করার পর হাত ২টো যেন যথা সম্ভব সামনে প্রসারিত হয়, তবে মেরুদন্ড এবং বসার ভঙ্গি স্থির রেখে। চাপ পড়বে ডান এবং বাম পাশের কোমড়ে এবং মেরুদন্ডে। যদি চাপ বগলে পড়ে তাহলে বুঝতে হবে আপনার ব্যায়াম ভাল ভাবে হচ্ছে না। সেক্ষেত্রে দেখতে হবে মেরুদন্ড সম্ভবত বাকা অবস্থায় আছে, তখন আবার চেষ্টা করতে হবে। খুবই গুরুতবপূর্ন ব্যায়াম।

https://www.latestbangla.com/archives/1657

ধ্যান বলে সকল কার্যে সফল হোন

https://www.latestbangla.com/archives/1660

দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়

https://www.latestbangla.com/archives/1663

যে ব্যায়াম সমূহ ঘরের জন্য উপযোগী?

https://www.latestbangla.com/archives/1669

ব্যায়ামের মাধ্যমে সহবাসে মধুর আনন্দ লাভ করার উপায়

https://www.latestbangla.com/archives/1672

গরমে ব্যায়াম করুন ফিট থাকুন জানুন বিস্তারিত

https://www.latestbangla.com/archives/1677

যে ৪টি ব্যায়াম নারীদেহের উপরিভাগ সুগঠিত ও উন্নত করে

https://www.latestbangla.com/archives/1681

অব্যবহৃত চুড়ি দিয়ে বানিয়ে ফেলুন ক্যান্ডেল-হোল্ডার এবং পেন্সিল-হোল্ডার

https://www.latestbangla.com/archives/1686

তেজপাতার গুণাগুণ সম্পর্কে জেনে নিন

https://www.latestbangla.com/archives/1694

ত্রিফলার স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য উপকারীতা,না জানলে জেনে নিন

https://www.latestbangla.com/archives/1697

১টি মাত্র আদা পানীয় প্রতিরোধ করবে ক্যান্সারসহ আরও অনেক রোগ?

https://www.latestbangla.com/archives/1703

পরিবারের সুস্থতায় ঘরেই রাখুন ঔষধি গাছ

https://www.latestbangla.com/archives/1417

নিয়মিত আমলকি খাওয়ার ৭ কারণ না জানলে জেনে নিন

https://www.latestbangla.com/archives/1712

সবুজ কফি বীজের স্বাস্থ্য উপকারিতা জেনে নিন

https://www.latestbangla.com/archives/1718

ইউরিন ইনফেকশন থেকে বাচার উপায়

 

কোন খাবার কতদিন রাখবেন ফ্রিজে?

https://www.latestbangla.com/archives/1726

বিয়ে প্রেম থেকে পারিবারিকভাবে করা ভালো যে ৪ টি কারণে

https://www.latestbangla.com/archives/1736

কোন মেয়ে আপনার প্রেমে পড়েছে কিনা কীভাবে বুঝবেন?

: https://www.latestbangla.com/archives/1740

মেয়েদের অতি গোপনীয় কিছু সত্য

https://www.latestbangla.com/archives/1745

পরকীয়া থেকে স্বামীকে বিরত রাখার ৮টি পরামর্শ

https://www.latestbangla.com/archives/1750

প্রতিদিন ১ গ্লাস ডাবের পানি খান এবং ৭ টি স্বাস্থ্য সমস্যা থেকে মুক্ত থাকুন

https://www.latestbangla.com/archives/1754

দাড়িয়ে প্রস্রাব করলে পুরুষের কি কি ক্ষতি হয় জানলে জীবনেও এই কাজটি করবেন না

https://www.latestbangla.com/archives/1832

কচু শাকের এতো পুষ্টিগুণ! জানলে আজ থেকেই খাওয়া শুরু করবেন

https://www.latestbangla.com/archives/1843

 

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। প্রতিদিনের আপডেট পেতে আমাদের Facebook লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন।
ধন্যবাদ।

শেয়ার করতে ভুলবেন না

Check Also

এখানে খরচ

এখানে খরচ নাই ওষুধ পাই বিনা মূল্যে

এখানে খরচ নাই,ওষুধ পাই বিনা মূল্যে নরসিংদী সাদত স্মৃতি পল্লী প্রকল্পে যারা ডাক্তার দেখাতে ইচ্ছুক, ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.