Thursday , September 23 2021
Home / বাংলাদেশ / চট্টগ্রামবাসীর গলার কাঁটা দেওয়ানহাট-আগ্রাবাদ সড়ক

চট্টগ্রামবাসীর গলার কাঁটা দেওয়ানহাট-আগ্রাবাদ সড়ক

চট্টগ্রামবাসীর গলার কাঁটা দেওয়ানহাট-আগ্রাবাদ সড়ক , দেওয়ানহাট থেকে আগ্রাবাদ মোড় পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তা যেন চট্টগ্রাম নগরবাসীর গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

চট্টগ্রামবাসীর
চট্টগ্রামবাসীর গলার কাঁটা দেওয়ানহাট-আগ্রাবাদ সড়ক

      চট্টগ্রামবাসীর গলার কাঁটা দেওয়ানহাট-আগ্রাবাদ সড়ক

এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের নির্মাণকাজে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা যান চলাচলের প্রায় অনুপযোগী। ৫ মিনিটের রাস্তা পার হতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয় বাণিজ্যিক পাড়ার কর্মজীবীদের।

নগর পরিকল্পনাবিদরা বলছেন, উন্নয়নকাজের জনদুর্ভোগ কমানোর পরিকল্পনা না থাকায় এই ভোগান্তি।

সকাল ৯টা ২০ মিনিটে দেওয়ান হাট থেকে ছেড়ে আসা সিটি সার্ভিসের বাসটি আগ্রাবাদ মোড়ে পৌঁছায় তখন সময় প্রায় ১০টা ছুঁইছুঁই। অথচ দেড় কিলোমিটার এ রাস্তা পার হতে সময় লাগার কথা ৫ থেকে ৬ মিনিট। এই পথ পাড়ি দিতে প্রতিদিন হাজার হাজার কর্মজীবীকে সময় অপচয় করতে হয় কয়েক ঘণ্টা।

একজন পথচারী বলেন, এই যানজটটা খুব কষ্টকর। সহ্য হয় না। মন চায়, গাড়ি থেকে নেমে যাই। অপর এক পথচারী বলেন, যানজটের কারণে আমাদের অফিসে যেতে অনেক সময় লাগে। কোনো কোনো দিন এক ঘণ্টার জায়গায় দুই ঘণ্টা লেগে যায়।

এক বাসচালক বলেন, যানজটের কারণে আমারা সময় মেইনটেন করতে পারি না। যাত্রীরা চিল্লাচিল্লি করে। গাড়ি রাস্তার গর্তে পড়ে যায়। এক গাড়ির সঙ্গে অন্য গাড়ি বেজে যায়।

 

আরেক চালক বলেন, দেওয়ানহাট থেকে আগ্রাবাদ আসতেই এক ঘণ্টার বেশি সময় লেগেছে। এভাবে গাড়ি চালানো খুবই কষ্ট।

দীর্ঘদিন ধরে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের নির্মাণকাজ চলায় দু’পাশে রাস্তা যানবাহন চলাচলের অনুপযুক্ত হয়ে পড়েছে। বিপজ্জনক ভাঙা রাস্তায় ধীরগতির কারণে সৃষ্টি হয় যানজটের। এতে হিমশিম খেতে হয় ট্রাফিক পুলিশকেও।

এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের নির্মাণকাজে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তায় যান চলাচলে দুর্ভোগ কমাতে পরামর্শ দিয়ে নগর পরিকল্পনাবিদ প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদার বলেন, নির্মাণকাজে যে গর্তগুলো হয়, সেগুলো রাতের বেলা যখন যানবাহনে চাপ কম থাকে সে সময় রোলার চালিয়ে স্মুথ করে দেওয়া হয়, যে পানিগুলো পড়ে সেগুলো যদি ড্রেনের মাধ্যমে অপসারণ করা হয় তাহলে জনদুর্ভোগ কিছুটা হলেও কমবে।

২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে শুরু হওয়া এ এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে ২০২১ সালে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও পরে প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হয় ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত।

 

বিশ্বকাপের দল নিয়ে যে কারণে  আত্মবিশ্বাসী বিসিবি

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। প্রতিদিনের আপডেট পেতে আমাদের Facebook লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন।

শেয়ার করতে ভুলবেন না

Check Also

ভারতে

ভারতে আটক সেই পুলিশ কর্মকর্তা বরখাস্ত

ভারতে আটক সেই পুলিশ কর্মকর্তা বরখাস্ত , পালিয়ে ভারতে গিয়ে ধরা পড়া পুলিশ কর্মকর্তা শেখ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *