Thursday , September 23 2021
Home / আন্তর্জাতিক / হিজাব ছাড়া নারীরা কাটা তরমুজের মতো: তালেবান

হিজাব ছাড়া নারীরা কাটা তরমুজের মতো: তালেবান

হিজাব ছাড়া নারীরা কাটা তরমুজের মতো: তালেবান , তালেবানের এক কর্মকর্তা আফগানিস্তানের নারীদের অধিকারের কথা বলতে গিয়ে হিজাব না পরা নারীরা কাটা তরমুজের মতো বলে মন্তব্য করেছেন।

হিজাব
হিজাব ছাড়া নারীরা কাটা তরমুজের মতো তালেবান

     হিজাব ছাড়া নারীরা কাটা তরমুজের মতো: তালেবান

বিবিসির এক সাংবাদিককে দেওয়া সাক্ষাৎকারটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে এবং অনেকেই নিন্দা জানাচ্ছেন।

তালেবানের ওই সদস্য বলেন, ‘আপনারা কি কেউ কাটা তরমুজ কেনেন? নাকি আস্ত তরমুজ কেনেন? অবশ্যই গোটাটাই কেনেন। হিজাব না পরা নারীরা হলো ‘কাটা তরমুজ’। বিবিসির সাংবাদিক জিয়া শাহরিয়ার ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে শেয়ার করেন। আপলোডের পরপরই প্রচুরসংখ্যক মানুষ এটি দেখেন এবং শেয়ারও করেন।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সালে আফগানিস্তানে তালেবানের শাসনকালে নারীদের অধিকারের বিষয়গুলো ক্ষুণ্ণ হওয়ার বিস্তর অভিযোগ আছে আন্তর্জাতিক মহলে। এবারও তালেবানের নতুন সরকারে উচ্চপর্যায়ে ঠাঁই হয়নি নারীদের।

নতুন আফগান সরকারে কোনো নারী মন্ত্রী না থাকা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে টোলো নিউজকে তালেবান মুখপাত্র সৈয়দ জেকরুল্লাহ হাশিমি বলেন, নারীদের অর্ধেক বলার অর্থ হচ্ছে, তাদের মন্ত্রিসভায় স্থান দেওয়া, এর বাইরে কিছু না। তাদের অধিকার হরণ করা তখন ইস্যু হবে না। তখন যাচ্ছেতাইভাবে নারীর অধিকার হরণ করা যাবে। গত দুই দশকে আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের পুতুল সরকার তাদের কার্যালয়ে যা করেছে, তা পতিতাবৃত্তি ছাড়া আর কিছু? তখন গণমাধ্যম এ নিয়ে কী বলেছিল?

 

আপনি সব নারীর বিরুদ্ধে পতিতাবৃত্তির অভিযোগ আনতে পারেন না—সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি সব আফগান নারীকে বোঝাইনি। চারজন নারী রাস্তায় প্রতিবাদ করছেন, তারা সব আফগান নারীর প্রতিনিধিত্ব করতে পারেন না। যারা আফগানিস্তানে সন্তান জন্ম দিয়ে নাগরিক বাড়াচ্ছেন, সন্তানদের ইসলামিক নৈতিকতা শিক্ষা দিচ্ছেন—ওই প্রতিবাদকারী নারীরা তাদের প্রতিনিধিত্ব করছেন না।

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর দেশটি থেকে আমেরিকানদের অন্যত্র সরিয়ে নিতে সহযোগিতা পেয়ে তালেবানের প্রশংসা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দেশটি জানায়, তালেবান দক্ষ ও সহায়ক।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র এমিলি হর্ন বলেন, কাতার এয়ারওয়েজের একটি চার্টার ফ্লাইটে কাবুল থেকে লোকজনকে দোহায় সরিয়ে নেওয়া ছিল ইতিবাচক প্রথম পদক্ষেপ।

তিনি বলেন, কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে চার্টার ফ্লাইটে মার্কিন নাগিরক ও আফগানিস্তানের আইনগত বৈধ স্থায়ী বাসিন্দাদের সরিয়ে নিতে তালেবান সহযোগিতাপূর্ণ আচরণ করেছে। তারা আমাদের সঙ্গে নমনীয়তা দেখিয়েছে—দক্ষতা ও পেশাদার আচরণ করছে।

আরো কিছু পোস্ট আপনার জন্য প্রয়োজনে দেখতে পারেন

আমরা ভাটির সময় জাগি জোয়ার হলি ডুবি

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। প্রতিদিনের আপডেট পেতে আমাদের Facebook লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন।

শেয়ার করতে ভুলবেন না

Check Also

মাঝে

মাঝে পর্দা দিয়ে আফগান শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু

মাঝে পর্দা দিয়ে আফগান শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু , তালেবানরা ক্ষমতা দখলের পর প্রথমবারের মতো আফগানিস্তানের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *